মালয়েশিয়ার সপ্তম প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন মাহাথির মোহাম্মদ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | ১১ মে,২০১৮ : মালয়েশিয়ার সপ্তম প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ গ্রহণ করেছেন মাহাথির মোহাম্মদ। বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় রাত ৯ টায় ৯২ বছর বয়সী মাহাথির ঐতিহাসিক এ শপথ গ্রহণ করেন।

জানা যায়, মালয়েশিয়ায় কোনো অন্তর্বর্তীকালীন সরকার না থাকায় সরকার গঠন জরুরী। তাই সরকারি ঘোষণার আগেই বৃহস্পতিবার রাতে এ শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠিত হলো।

এর আগে বুধবার (৯ মে) মালয়েশিয়ায় ১৪তম সাধারণ নির্বাচনে ঐতিহাসিক জয় পান দেশটির সাবেক প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ। তার এই বিজয় ব্রিটেন থেকে দেশটির স্বাধীনতা লাভের ৬১ বছরের মধ্যে সরকার প্রথম পরিবর্তনের দরজা খুলে দিয়েছে।

ক্ষমতা হারাল দীর্ঘ ৬০ বছর ক্ষমতায় থাকা বারিসান ন্যাশনাল। মাহাথির এই বারিসান ন্যাশনালের নেতা হিসেবেই দীর্ঘদিন ক্ষমতায় ছিলেন।

এই নির্বাচন বহুদিনের একদলীয় (বারিসান ন্যাশনাল) শাসনের পর মালয়েশিয়ার রাজনৈতিক ব্যবস্থাকে ওলট-পালট করে দিয়েছে। মুসলিম-সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশটি বুধবার সরকারের পরিবর্তনের জন্য এক অসাধারণ ভোটে অংশ নেন।

ভোটের এই ফলাফল অনেকটা দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার একটি রাজনৈতিক ভূমিকম্পের মতো, যেখানে দীর্ঘদিন ধরে এক পক্ষের শাসনের প্রবণতা রয়েছে এবং সাম্প্রতিক বছরগুলোতে এই প্রবণতা আরো বেশি কর্তৃত্ববাদী শাসনের দিকে মোড় নিয়েছে।

এদিকে ১৫ বছর পর আবার দেশটির কান্ডারির ভূমিকায় দেখা যাবে ৯২ বছর বয়সী এই রাজনীতিককে।

প্রধানমন্ত্রী পদে শপথ গ্রহণের মধ্য দিয়ে বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক নির্বাচিত নেতা হিসেবে ইতিহাস গড়লেন মাহাথির মোহাম্মদ। এর আগে টানা প্রায় ২২ বছর মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন তিনি। ২০০৩ সালে তিনি ক্ষমতা থেকে সরে যান। গতকাল বুধবার অনুষ্ঠিত সাধারণ নির্বাচনে বিদায়ী প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাকের রাজনৈতিক জোট বারিসান ন্যাশনালকে (বিএন) হারিয়ে মাহাথিরের নেতৃত্বাধীন জোট সংখ্যাগরিষ্ঠতা লাভের পর দেশটিতে শান্তিপূর্ণ ক্ষমতা হস্তান্তর নিয়ে ধোঁয়াশার সৃষ্টি হয়েছিল। তবে সব আশঙ্কার অবসান ঘটিয়ে শেষ পর্যন্ত শপথ নিলেন মাহাথির।

মাহাথির মোহাম্মদের শপথ নেওয়ার খবরে কুয়ালালামপুরে প্রাসাদের বাইরে উল্লাসে মেতে ওঠেন তার কর্মী-সমর্থকেরা। অনেকেই পতাকা উড়িয়ে ও গান গেয়ে মুহূর্তটি উদ্‌যাপন করেন। বিজয়ের পর মালয়েশিয়ায় দুই দিনের সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে। তবে মাহাথির মোহাম্মদ বলেছেন, নির্বাচনে বিজয়ীদের কোনো ছুটি থাকবে না।

মালয়েশিয়ায় ১৪তম সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় বুধবার। ৬০ বছরের বেশি সময় ধরে মালয়েশিয়া শাসন করা বারিসান ন্যাশনালের ভিত এবার নড়ে যায়। নাজিবের এই জোটের চেয়ে বেশি পার্লামেন্ট আসনে জেতে মাহাথিরের পাকাতান হারাপান। আনুষ্ঠানিক ফলাফলে জানা গেছে, মাহাথিরের নেতৃত্বাধীন রাজনৈতিক জোট পাকাতান হারাপান পার্লামেন্টের ১১৩টি আসনে জয়ী হয়েছে। পার্লামেন্টের মোট আসন ২২২টি। অন্যদিকে বারিসান ন্যাশনাল জিতেছে ৭৯টি আসনে।

মাহাথির মোহাম্মদও নিজেও একসময় বারিসান ন্যাশনাল জোটের অংশ ছিলেন। তবে ১৫ বছর পর রাজনীতির মঞ্চে ফিরেই নিজের দল ও একসময়ের শিষ্য নাজিব রাজাকের বিরুদ্ধে দাঁড়ান তিনি। মাহাথির বলেছিলেন, যে রাজনৈতিক দল দুর্নীতিকে প্রশ্রয় দেয়, সেই দলে থাকা লজ্জার।

বিরোধীদলীয় জোট পাকাতান হারাপান ২০১৮ সালের জানুয়ারি মাসে মাহাথিরকে প্রধানমন্ত্রী পদে প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা করে। তখন মাহাথির বলেছিলেন, নির্বাচিত হলে বেশি দিন ক্ষমতায় থাকবেন না তিনি। আনোয়ার ইব্রাহিমকে ক্ষমতায় এনেই বিদায় নেবেন।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*